স্টার্টআপে ১০০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৯৩তম

স্টার্টআপে ১০০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৯৩তম

জাতীয় স্লাইড

জুন ৪, ২০২২ ১:২৫ অপরাহ্ণ

স্টার্টআপ খাতে বাংলাদেশ গত বছরের মতো এবারও ৯৩তম অবস্থান ধরে রেখেছে। আর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ। ১০০ দেশের তালিকায় জায়গা পাওয়া দক্ষিণ এশিয়ার বাকি দেশগুলোর মধ্যে ভারত ১৯, পাকিস্তান ৭৬ ও শ্রীলংকা ৯০তম অবস্থানে রয়েছে। তালিকার শীর্ষে রয়েছে যথাক্রমে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইসরাইল, কানাডা, সুইডেন, জার্মানি ও সিঙ্গাপুর।

সম্প্রতি প্রকাশিত স্টার্টআপ ব্লিঙ্কের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি ‘গ্লোবাল স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম ইনডেক্স ২০২২’ নামে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কঠিন অর্থনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে গেলেও স্টার্টআপে নিজেদের গতি ধরে রেখেছে শ্রীলংকা। আগের বছরের চেয়ে দুই ধাপ এগিয়ে ১০০ দেশের মধ্যে ৯০তম স্থানে এসেছে দেশটি। প্রতিকূল অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মানুষকে উদ্যোক্তা হওয়ার দিকে ঠেলে দেয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে স্টার্টআপ ব্লিঙ্ক।

তালিকার এক হাজার শহরের মধ্যে ভারতের বেঙ্গালুরু আছে অষ্টম স্থানে। তালিকায় আঞ্চলিকভাবে ভারতের শহরগুলোই রাজত্ব করছে। ঢাকা ৬৩ ধাপ পিছিয়ে ৩২৬তম অবস্থানে দাঁড়িয়েছে। এ তালিকায় শুধু দক্ষিণ এশিয়ায় শহরগুলো বিবেচনায় নিলে ঢাকার অবস্থান ১২তম। অপর দিকে এ বছর এক হাজার শহরের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে খুলনা ও চট্টগ্রাম।

স্টার্টআপ ব্লিঙ্ক বলেছে, বাংলাদেশের শক্তিশালী অর্থনৈতিক সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এর জন্য সরকারের প্রয়োজনীয় সমর্থন দরকার। ইন্টারনেট সেবায় স্থিতিশীলতাসহ অবকাঠামোগত উন্নতিকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। সরকারের নীতিগত সহায়তা, করপোরেট ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ও স্টার্টআপবান্ধব শিল্প-অ্যাকাডেমিক সহযোগিতা বাড়াতে হবে।

বাংলাদেশ আগের বছরের তুলনায় স্টার্টআপে চারগুণ বেশি বিনিয়োগ পেয়েছে, যার বেশির ভাগই এসেছে দেশের বাইরে থেকে। স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমের জন্য এটা বড় সুযোগ বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

দেশীয় গবেষণা সংস্থা লাইটক্যাসল পার্টনার্স বাংলাদেশ স্টার্টআপ নিয়ে গত বছরের সেপ্টেম্বরে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তাতে বলা হয়, বাংলাদেশের স্টার্টআপ খাতে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি বিনিয়োগ এসেছে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসি ২০১৬ সাল থেকে স্টার্টআপ নিয়ে কাজ করছে। এখন পর্যন্ত তারা চারটি প্রতিষ্ঠানে ৩০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.