সশস্ত্র বাহিনীর গুলিতে মিয়ানমারে ৪৩ শিশু নিহত

সশস্ত্র বাহিনীর গুলিতে মিয়ানমারে ৪৩ শিশু নিহত

আন্তর্জাতিক

এপ্রিল ২, ২০২১ ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ

মিয়ানমারে অভ্যুত্থানের পর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটির সশস্ত্র বাহিনীর গুলিতে ৪৩ শিশু নিহত হয়েছে। অধিকার সংস্থা সেফ দ্য চিলড্রেন বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছে।

সংস্থাটি জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে দুঃস্বপ্নের পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এবং দেশটিতে সবচেয়ে কম বয়সী সাত বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে।

মিয়ানমারে রক্তগঙ্গা আসন্ন। এই রক্তগঙ্গা এড়াতে নিরাপত্তা পরিষদকে পদক্ষেপ নিতে বলেছেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শানার বার্গেনার।

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে প্রায় দুই মাসের বিক্ষোভে এখন পর্যন্ত ৫৩৬ জন বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন। তার মধ্যে ১৪১ জনই নিহত হয়েছেন গত শনিবার। স্থানীয় পর্যবেক্ষক সংস্থা দ্য অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স (এএপিপি) এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, রাস্তায় নামলেই সশস্ত্র বাহিনী এলোপাতাড়ি গুলি করছে। এমনকি কিছু লোক তাদের বাড়িতে গিয়ে গুলি করে হত্যা করেছে।

নিহত সাত বছরের শিশু খিন মিয়ো চিটের পরিবার সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে জানিয়েছে, ২৩ মার্চ মান্দালে শহরে বাড়িতেই বাবার কোলে বসে খেলছিল শিশুটি। হঠাৎ ছুটে আসা ঘাতক বুলেটের আঘাতে মুহূর্তেই লুটিয়ে পড়ে খিন মিয়ো ।

সেভ দ্য চিলড্রেন সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘাত চলাকালে বিপুল সংখ্যক শিশু আহত হয়েছে। এদের মধ্যে এক বছরের এক শিশুর চোখে রাবার বুলেট আঘাত হেনেছিল। এই সহিংসতার কারণে শিশুরা ভয়, উদ্বেগ ও চাপ অনুভব করায় তাদের মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়ছে।

এক বিবৃতিতে সংস্থাটি বলেছে, শিশুরা সহিংসতা ও ভয়াবহতার প্রত্যক্ষদর্শী। এটা স্পষ্ট যে, মিয়ানমার আর শিশুদের জন্য নিরাপদ জায়গা নয়।

মিয়ানমারে গত ১ ফেব্রুয়ারি রক্তপাতহীন সামরিক অভ্যুত্থান করে দেশটির সেনাবাহিনী। তারা অং সান সু চির ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নির্বাচিত সরকার উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে। একই সঙ্গে গ্রেফতার করে সু চিসহ তার দলের শীর্ষ নেতাদের। সেনাবাহিনী মিয়ানমারে এক বছরের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.