যে কারণে নায়িকা শিমুকে হত্যা, জানালেন এসপি

যে কারণে নায়িকা শিমুকে হত্যা, জানালেন এসপি

বিনোদন স্লাইড

জানুয়ারি ১৯, ২০২২ ৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ

ঢাকাই সিনেমার নায়িকা রাইমা ইসলাম শিমুকে হত্যার কারণ জানিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে এ বিষয়ে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ হোসেন সরদার।

তিনি বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে শিমুকে হত্যা করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন গ্রেফতার শিমুর স্বামী শাখাওয়াত আলী নোবেল।

এর আগে, সোমবার সকালে কেরানীগঞ্জের হজরতপুর ব্রিজের কাছে আলিয়াপুর এলাকা থেকে শিমুর বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মরদেহটি স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতাল মর্গে নেয়া হয়।

এ ঘটনায় রাতেই শিমুর স্বামী নোবেল ও নোবেলের বন্ধু ফরহাদকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ সময় একটি গাড়িও উদ্ধার করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেন শিমুর স্বামী। তাদের কাছ থেকে একটি গাড়ি উদ্ধার করা হয়েছে। গাড়িটিতে রক্তের চিহ্ন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শিমুর ভাই শহিদুল ইসলাম খোকন বলেন, সবশেষ দুদিন আগে শিমুর সঙ্গে কথা হয়েছিল। তার কোনো শত্রু নেই। তবে এফডিসিতে ১০ দিন আগে ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া নিয়ে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছিল।

১৯৯৮ সালে সিনেমায় আত্মপ্রকাশ করেছিলেন শিমু। ২০০৪ সাল পর্যন্ত নিয়মিত তাকে বড় পর্দায় দেখা গেছে। প্রথম সারির পরিচালকদের সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন শিমু। গত কয়েক বছর ধরে তিনি নাটকের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে রাজধানীর গ্রিনরোড এলাকার বাসায় থাকতেন শিমু। সাম্প্রতিক সময়ে ফ্যামিলি ক্রাইসিস নামে একটি ধারাবাহিক নাটকে কাজ করেছেন। ২৩টির মতো সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.