যে কারণে কোটি টাকার চাকরি ছাড়লেন অ্যাপলের কর্মী

যে কারণে কোটি টাকার চাকরি ছাড়লেন অ্যাপলের কর্মী

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

মে ১৩, ২০২২ ২:৩১ অপরাহ্ণ

মহামারি করোনার সংক্রমণ বিস্তার রোধে কর্মীদের ঘরে বসে কাজ করার সুযোগ করে দেয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।  যাকে ‘হোম অফিস’ বলা হয়।

তবে বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতি স্বাভবিক হওয়ার পর থেকে ‘হোম অফিস’ সুবিধা বাতিল করে কর্মীদের ফের অফিসে ফেরার নির্দেশনা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

আর সেই নির্দেশনা-ই মেনে নেননি মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের এক কর্মকর্তা।  নিজের কোটি টাকা মূল্যের চাকরিটাই ছেড়ে দিলেন তিনি।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জের এক প্রতিবেদনে এমনটিই জানা গেছে।

ওয়েবসাইটটি জানায়, অ্যাপলের ওই চাকরি ছেড়ে দেওয়া ব্যক্তির নাম ইয়ান গুডফেলো।  মার্কিন এ নাগরিক অ্যাপলের মেশিন লার্নিং বিভাগের প্রধান ছিলেন।  ২০১৯ সাল থেকে অ্যাপলের কর্মী ছিলেন ইয়ান।

কত টাকা বেতনের চাকরি ছাড়লেন ইয়ান, তা সঠিকভাবে না জানা গেলেও তা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৩-২৪ লাখের কম হবে না।

অ্যাপলের আগে তিনি যে বহুজাতিক সংস্থায় কাজ করতেন, সেখানে তার বার্ষিক বেতন ছিল আট লাখ মার্কিন ডলার। তাই ধরে নেওয়া যায় অ্যাপলে তার বেতন এর চেয়ে কম ছিল না।

সে হিসাবে সপ্তাহে তিন দিন বাড়িতে বসে কাজ করতে না দেওয়ায় বার্ষিক প্রায় ৭ কোটি টাকার চাকরি ছেড়ে দিলেন ইয়ান।

দ্য ভার্জ জানায়, গত দুই বছরের বেশি সময় ধরে নিজের দলকে নিয়ে ‘হোম অফিস’ করে আসছিলেন ইয়ান গুডফেলো। সম্প্রতি কর্মীদের সপ্তাহে তিন দিন অফিস করার নির্দেশনা জারি করেছে অ্যাপল।  প্রতিষ্ঠানের এই নির্দেশ অসন্তুষ্ট করে ইয়ানকে। গত সপ্তাহে পদত্যাগ করে সহকর্মীদের তিনি জানান, প্রধান নির্বাহী টিম কুক কর্মীদের অফিসে ফেরার নির্দেশ দেওয়ায় পদত্যাগে বাধ্য হয়েছেন তিনি।

ইয়ান গুডফেলো বলেন, ‘আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি আরও নমনীয়তা আমার দলের জন্য সর্বোত্তম নীতি হবে।’

ফরচুন ম্যাগাজিনের তথ্য অনুযায়ী, এ বছরের ১৩ থেকে ১৯ এপ্রিলের মধ্যে অ্যাপলের ৬৫২ জন কর্মী এক জরিপে অংশ নেন। তাতে দেখা যায়, অ্যাপলের ৭৫ শতাংশ কর্মী প্রতিষ্ঠানটির অফিসে ফেরার নীতিতে সন্তুষ্ট নন।

এমন জরিপে মন গলেনি অ্যাপল কর্তৃপক্ষের। অফিসে ফেরার সিদ্ধান্তে অটল থাকেন অ্যাপলের প্রধান টিম কুক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.