বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী নীল চোখের যমজ বোন

বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী নীল চোখের যমজ বোন

ফিচার স্পেশাল

নভেম্বর ১৩, ২০২১ ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার অরেঞ্জ নামক এলাকায় বসবাসকারী নীল চোখের এই যমজ বোনদের দেখলে মানতে হবে এরাই পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর যমজ। ২০১০ সালে ক্যালিফোর্নিয়ায় জন্ম তাদের। জন্মের পরই দুই শিশুকে মডেলিং করার প্রস্তাব আসতে থাকে মা জ্যাকির কাছে।

ছয় মাস বয়সে তাদের লস এঞ্জেলেসে মডেলিং এজেন্সি স্বাক্ষর করান তাদের মা

ছয় মাস বয়সে তাদের লস এঞ্জেলেসে মডেলিং এজেন্সি স্বাক্ষর করান তাদের মা

সেই অনুযায়ী ছয় মাস বয়সে তাদের লস এঞ্জেলেসে মডেলিং এজেন্সি স্বাক্ষর করান মা। এরপর সাত জুলাই ২০১৭ তারিখে দুই মেয়েকে মডেল হিসেবে পরিচিতি করেন তিনি। অসংখ্য মানুষের মন ছুঁয়ে যাওয়া ইনস্টাগ্রামের প্রতিটি ছবি তাদের মা জ্যাকি ক্লেমেন্টসের হাতেই তোলা। মডেল হিসেবে শুধু জনপ্রিয়তা পাওয়াই নয়, এই দুই বোনকেই এখন মনে করা হয় বিশ্বের সেরা সুন্দরী জমজ বোন।

এই দুই বোনকেই এখন মনে করা হয় বিশ্বের সেরা সুন্দরী জমজ বোন

এই দুই বোনকেই এখন মনে করা হয় বিশ্বের সেরা সুন্দরী জমজ বোন

তবে সাত বছর বয়সেই মেয়েদেরকে মডেলিংয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিলেন কেন জ্যাকি? তিনি জানান, সাত তাদের লাকি নাম্বার। তাই সাত বছর বয়সেয় মেয়েদের মডেলিং আনার কথা ভাবেন তিনি। ২০১৯ সালের জুলাই মাসের দুই কন্যার ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট খুলে দিয়েছিল তাদের মা। সেই বছরই এই জমজ বোনের ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার সংখ্যা প্রায় এক লাখ ৩৯ হাজার জন ছাড়িয়ে যায়।

এই জমজ বোনের ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার সংখ্যা প্রায় এক লাখ ৩৯ হাজার জন ছাড়িয়ে যায়

এই জমজ বোনের ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার সংখ্যা প্রায় এক লাখ ৩৯ হাজার জন ছাড়িয়ে যায়

অনলাইনে তাদের অজস্র ভক্তদের দাবি, অপূর্ব এই দুই বোনই হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর যমজ। সত্যি, মিষ্টি এই শিশু দুটিকে দেখলে বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর যমজের খেতাব দিতে বাধ্য হবেন আপনিও। তাদের মা জ্যাকি বলেন, এত সুন্দর দুটি সন্তানের মা হতে পেরে আমি নিজেকে অনেক ভাগ্যবতী মনে করছি। ভবিষ্যতে ওদের যদি মডেলিং ভালো লাগে, তাহলে আমিও চাইবো তারা যেন মডেলিংয়েও অংশ গ্রহণ করে। জন্মের পর থেকেই লেহা রোজ আর আভা ম্যারি তাদের সৌন্দর্যের জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

এত সুন্দর দুটি সন্তানের মা হতে পেরে আমি নিজেকে অনেক ভাগ্যবতী মনে করছি

এত সুন্দর দুটি সন্তানের মা হতে পেরে আমি নিজেকে অনেক ভাগ্যবতী মনে করছি

তাদের মা আরো বলেন, বাচ্চাদের নিয়ে বের হলেই প্রায় রাস্তায় অপরিচিত লোকেরা তাকে থামিয়ে মেয়েদের আকর্ষণীয় চেহারা, নীল চোখ, সুন্দর হাসি দেখে প্রশান্তি পেতে এবং সৌন্দর্য নিয়ে মন্তব্য করতো। যা তাকে ছয় মাস বয়সের যমজ বাচ্চাদের মডেলিং করতে উৎসাহিত করেছিল। শিশুদের বিভিন্ন নামকরা মডেলিং এবং ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রিগুলোতে এই দুই বোন এখন সুপার ডুপার তারকা বনে গেছে।

লেহা রোজ আর আভা ম্যারি তাদের বাবার সঙ্গে

লেহা রোজ আর আভা ম্যারি তাদের বাবার সঙ্গে

শুধু তাই নয়, নাইকি, ডিজনি, ম্যাটেল, টার্গেট মতো নামিদামি সব ব্র্যান্ডের সঙ্গে কাজ করেছেন তারা। কয়েকটি পোশাক ব্রান্ডে এবং ম্যাগাজিনের অনুরোধে মডেলিংও অংশ নেয় তারা। যার ফলে মানুষের কাছে এ বছরের ‘দ্য ক্রিসমাস টুইন’ (বড়দিনের যমজ) নামে বেশ জনপ্রিয়তাও অর্জন করে নিয়েছে রোজ এবং ম্যারিন। স্বর্ণকেশী এই শিশু দুটির জন্য সপ্তাহের প্রায় ছয় দিনই ছোটদের নানা রকম মডেলিংএ অংশ নেয়ার অনুরোধ আসে।

লেহা রোজ আর আভা ম্যারি

লেহা রোজ আর আভা ম্যারি

সেই দুই বোন সাত বছর বয়স থেকে ইনস্টাগ্রাম সেন্সেশন। বর্তমানে মডেল এবং অভিনেত্রী হিসেবে কাজ করছেন তারা। এখনও তারা আগের মতোই সুন্দর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *