বালি দিয়ে ২১ মিটার উঁচু প্রাসাদ তৈরি, গ‌ড়ে‌ছেন রেকর্ড

বালি দিয়ে ২১ মিটার উঁচু প্রাসাদ তৈরি, গ‌ড়ে‌ছেন রেকর্ড

ফিচার স্পেশাল

জুলাই ১৬, ২০২১ ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

সারা বিশ্বজুড়ে প্রায় সবাই সমুদ্র সৈকতের বালির উপর রোদ পোহাতে কিংবা সময় কাটাতে পছন্দ করেন। অনেকে তো আবার সমুদ্র সৈকতে বালি দিয়ে ঘরবাড়িও বানান। এবার সমুদ্রপাড়ে বালি দিয়ে বিভিন্ন ধরনের চিত্রকর্ম বা শিল্প স্থাপত্য নির্মাণ করেন বালিশিল্পীরা। ভারতবর্ষেও রয়েছেন তেমনই একজন শিল্পী। নাম তার সুদর্শন পট্টনায়েক। তার খ্যাতি বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে।

তবে এবার সুদূর নেদারল্যান্ডসে এমন এক বালিশিল্পীর খোঁজ মিললো, যিনি বালি দিয়ে বিশ্বের সবথেকে উঁচু প্রাসাদ বানিয়েছেন। প্রাসাদটি তৈরি করতে পাঁচ হাজার টন বালি লেগেছে। ২০১৯ সালে জার্মানিতে এরকম একটি বালির প্রাসাদ বানানো হয়েছিল, যে প্রাসাদের উচ্চতা এতদিন সর্বোচ্চ হিসেবে গণ্য করা হতো। তবে ডেনমার্কের ব্লোখুস শহরের এই বালির প্রাসাদটি সেই রেকর্ডও ভেঙে দিল।

২১.১৬ মিটার উঁচু বালির প্রাসাদটি ২০১৯ সালে নির্মিত জার্মানির বালির প্রাসাদটি থেকেও তিনগুণ উঁচু

২১.১৬ মিটার উঁচু বালির প্রাসাদটি ২০১৯ সালে নির্মিত জার্মানির বালির প্রাসাদটি থেকেও তিনগুণ উঁচু

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, উইলফ্রেড স্টিগার নামে ওই বালিশিল্পী এই প্রাসাদটি তৈরি করেছেন। তবে তিনি একা নন, আরো ৩০ জন বালিশিল্পী তাকে এই কাজে সাহায্য করেছেন। জানা যায়, ২১.১৬ মিটার উঁচু বালির প্রাসাদটি ২০১৯ সালে নির্মিত জার্মানির বালির প্রাসাদটি থেকেও তিনগুণ উঁচু। আর এইপ্রাসাদটিদেখতে অনেকটা পিরামিডের মতো।

২১.১৬ মিটার উঁচু বালির প্রাসাদটি ২০১৯ সালে নির্মিত জার্মানির বালির প্রাসাদটি

২১.১৬ মিটার উঁচু বালির প্রাসাদটি ২০১৯ সালে নির্মিত জার্মানির বালির প্রাসাদটি

জানা যায়, ২১.১৬ মিটার উঁচু বালির প্রাসাদটি ২০১৯ সালে নির্মিত জার্মানির বালির প্রাসাদটি থেকেও তিনগুণ উঁচু। আর এই প্রাসাদটি দেখতে অনেকটা পিরামিডের মতো। এরই মধ্যে স্থানীয়রা এই বালির প্রাসাদ দেখে খুবই খুশি হয়েছেন। তবে এই বালির প্রাসাদটির আরো একটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। আর সেটি হলো এই বালির প্রাসাদটির মাথায় রয়েছে করোনা ভাইরাসের একটি প্রতিকৃতিও। যা আবার অনেকেরই নজর কেড়েছে।

বালির প্রাসাদটির মাথায় রয়েছে করোনা ভাইরাসের একটি প্রতিকৃতি

বালির প্রাসাদটির মাথায় রয়েছে করোনা ভাইরাসের একটি প্রতিকৃতি

গত একবছর ধরে করোনা যেভাবে গোটা বিশ্বে ত্রাস ছড়িয়ছে তা বোঝাতেই এই বালির প্রাসাদটি তৈরি করেছেন তিনি। আর সেকারণেই এটির মাথায় করোনা ভাইরাসের ওই প্রতিকৃতি তৈরি করা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন উইলফ্রেড জানান, ‘করোনা সর্বত্র আমাদের জীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছে। এই ভাইরাসই বলে দিচ্ছে আমাদের পরিবারের থেকে দূরে থাকতে হবে। ভালো ভালো জায়গায় যাওয়া যাবে না। কোনো কাজ করা যাবে না। সবসময় ঘরে থাকতে হবে।’

তবে এই বালির প্রাসাদটি কেবল বালি নয়, এর সঙ্গে মেশানো হয়েছে ১০ শতাংশ ক্লে এবং আঠাও। যাতে ঠাণ্ডার মরশুমেও এটি অটুট থাকে। জানা গিয়েছে, প্রাসাদটি আগামী ফেব্রুয়ারি-মার্চ পর্যন্ত এভাবেই থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *