বাজারে ডলারের তেজ কিছুটা কমেছে

বাজারে ডলারের তেজ কিছুটা কমেছে

অর্থনীতি স্লাইড

আগস্ট ১, ২০২২ ১০:২৫ পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশ ব্যাংক ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর অভিযানে নগদ ডলারের তেজ কিছুটা কমেছে। ব্যাংকে নগদ ডলারের দাম ১ টাকা কমে সর্বোচ্চ ১০৭ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকগুলোয় সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা দরে ডলার বিক্রি হয়েছিল। খোলাবাজারে ডলারের দাম ১ টাকা কমে ১০৮ টাকায় নেমে এসেছে। বৃহস্পতিবার বিক্রি হয়েছিল ১০৯ টাকা দরে। এর আগে মঙ্গলবার খোলাবাজারে ডলারের দাম সর্বোচ্চ ১১২ টাকায় উঠেছিল।

এদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তদন্তে ৮টি মানি চেঞ্জার্স প্রতিষ্ঠানে ডলার বেচাকেনায় অনিয়মের তথ্য পাওয়া গেছে। ওইসব প্রতিষ্ঠান গ্রাহকদের কাছ থেকে অফিসিয়াল চ্যানেলে ডলার কিনেছে ১০২ টাকা দামে। ওইসব ডলার তারা অফিসিয়ালি বিক্রি করেনি। তাদের কাছে এসব ডলার নগদ আকারেও পাওয়া যায়নি। তারা ওইসব ডলার বেআইনিভাবে খোলাবাজারে ১১২ টাকা করে বিক্রি করেছে। এর মাধ্যমে তারা প্রতি ডলারে ১০ টাকা করে মুনাফা করেছে। একই সঙ্গে কয়েকটি মানি চেঞ্জার্স প্রতিষ্ঠানে বেআইনিভাবে অফিসিয়াল চ্যানেলের বাইরে নগদ ডলার বেচাকেনা হয়েছে।

সূত্র জানায়, বাজারে চাহিদার তুলনায় ডলার মিলছে না। ফলে এর দাম বেড়েই চলেছে। মঙ্গলবার খোলাবাজারে ডলারের দাম রেকর্ড ১১২ টাকায় উঠেছিল। ওইদিন ব্যাংকে নগদ ডলার উঠেছিল ১০৮ টাকায়। খোলাবাজার ও ব্যাংকের মধ্যে ব্যবধান ছিল ৪ টাকা। বাজার নিয়ন্ত্রণে বুধবার থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকারের একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা মাঠে নামে। তারা তদন্ত শুরু করলে এর দাম কিছুটা কমে যায়। একই সঙ্গে খোলাবাজারে ও মানি চেঞ্জার্স প্রতিষ্ঠানগুলোয় ডলারের লেনদেন কমে যায়।

রোববারও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ১১টি পরিদর্শক দল বিভিন্ন ব্যাংক ও মানি চেঞ্জার্স প্রতিষ্ঠানে তদন্ত করে। একই সঙ্গে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর পক্ষ থেকেও খোলাবাজার থেকে ডলার বেচাকেনার তথ্য সংগ্রহ করা হয়। তাদের অভিযানের ফলে ব্যাংকে নগদ ডলারের দাম সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা থেকে কমে ১ টাকা কমে ১০৭ টাকায় নেমে আসে। এদিন কোনো ব্যাংকে ডলারের দাম বাড়েনি। তবে বেশির ভাগ ব্যাংক নগদ ডলার বিক্রি করছে ১০২ থেকে ১০৫ টাকার মধ্যে।

খোলাবাজারে ডলারের দাম সর্বোচ্চ ১০৮ টাকায় নেমে এসেছে, যা ব্যাংকের চেয়ে ১ টাকা বেশি। তবে আমদানির জন্য ডলারের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। প্রতি ডলার ৯৪ টাকা ৭৫ পয়সা দরে বিক্রি হচ্ছে। আন্তঃব্যাংকেও প্রতি ডলার ৯৪ টাকা ৭০ পয়সায় অপরিবর্তিত রয়েছে।

এছাড়া অনলাইনে যেসব প্রতিষ্ঠান বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন করে, সেসব প্রতিষ্ঠানেও তদন্ত করবে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শক দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.