ফোন ধরার স্টাইলেই জানা যাবে আপনার ব্যক্তিত্ব

ফোন ধরার স্টাইলেই জানা যাবে আপনার ব্যক্তিত্ব

লাইফস্টাইল স্পেশাল

জুন ৫, ২০২২ ১:৩৪ অপরাহ্ণ

সব মানুষ সমান হয় না। একেক জন একেকে রকম। একজনের ব্যক্তিত্ব অন্যজনের সঙ্গে মিলে না। তাই হুট করেই একজনের পক্ষে বোঝা সম্ভব হয় না যে, সামনের মানুষটি কেমন স্বভাবের। কিন্তু নিজের অজান্তেই আপনি এমন অনেক কাজ করেন, যা আপনার ব্যক্তিত্বকে তুলে ধরে। তেমনই একটি কাজ ফোন ধরার স্টাইল।

স্মার্টফোন ধরার একাধিক ধরন থাকতে পারে। ফোন কীভাবে ধরছেন আর কীভাবে অপারেটর করছেন, এর উপর আপনার ব্যক্তিত্ব ফুটে ওঠে। আমরা একেকজন একেক ভাবে নিজের স্মার্টফোনটিতে কাজ করি। ফোন ধরার কৌশলটি লোক ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে। আর এই ফোন ধরার স্টাইল বলে দিতে পারে আপনার ব্যক্তিত্ব কেমন। চলুন ফোন ধরার স্টাইলে কার ব্যক্তিত্ব কেমন জেনে নেই-

>> এক হাতে ফোন ধরে অন্য হাতের যেকোনো আঙুল দিয়ে ফোন স্ক্রলিং ও টাইপিং, এটাই যদি আপনার ফোন অপারেট করার স্টাইল হয়, তাহলে বুঝতে হবে আপনি একজন সৃজনশীল এবং স্বতঃস্ফূর্ত ব্যক্তি। চিন্তা-ভাবনা করতে আপনি ভালোবাসেন। আর মাঝে মধ্যে আপনি এমনই তুখড় আইডিয়া নিয়ে হাজির হন, যা আউট অফ দ্য বক্স হিসেবে প্রমাণিত হয়।

>> আপনি যদি দুই হাতে ফোন ধরে দুই হাতের বৃদ্ধা আঙ্গুল দিয়ে স্ক্রল ও টাইপিং করেন, তবে আপনি বুদ্ধিমান, বহুমুখী, উদ্যমী, দক্ষ এবং একজন চিন্তামুক্ত ব্যক্তি। যেকোনো বিষয়ের বিশ্লেষণ করতে এবং তার উপযুক্ত সমাধান খুঁজে বের করতে আপনি সদা তৎপর। জীবনে আপনি পরিবর্তন পছন্দ করেন এবং সেই অনুযায়ী পরিস্থিতির সঙ্গে নিজেকে মানিয়েও নিতে পারেন খুব ভাল ভাবে।

>> আপনি যদি দুই হাতে ফোন ধরে এক হাতের বৃদ্ধা আঙ্গুর দিয়ে স্ক্রল ও টাইপিং করেন, তাহলে ধরে নিতে হবে- আপনি একজন বাস্তববাদী এবং অত্যন্ত জ্ঞানী ব্যক্তি। কর্মের প্রতি আপনি নিষ্ঠাবান, অত্যন্ত সতর্ক, সবসময় ঝুঁকি এড়াতে পছন্দ করেন। এছাড়াও আপনি অন্য মানুষের ক্ষেত্রে সহানুভূতিশীল ও যত্নশীল। তার ফলে অন্যান্য মানুষজন আপনার উপরে সহজে ভরসাও করতে পারেন। এই বিশেষ গুণটি আপনাকে যেকোনো ধরনের প্রতারণা থেকে নিরাপদ থাকতে সাহায্য করে।

>> একহাতে ফোন ধরে বৃদ্ধা আঙ্গুল দিয়ে স্ক্রল এবং টাইপ করলে বুঝতে হবে আপনি একজন উদ্বিগ্ন, আশাবাদী এবং আত্ম-নিশ্চিত ব্যক্তি। জীবন আপনার কাছে যাই কিছু নিয়ে আসুক না কেন, আপনি তা খুব সহজে গ্রহণ করেন এবং নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেন। নিজের প্রতি আপনি যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী এবং আপনার জীবনে যেকোনো সমস্যা আসুক না কেন, সেই সব বাধাবিপত্তি এড়িয়ে আপনি সামনের দিকে এগিয়ে চলার চেষ্টা করেন। জীবনের যেকোনো পর্যায়ে ঝুঁকি নিতে আপনি কুণ্ঠা বোধ করেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.