ফিফা বেস্টের সংক্ষিপ্ত তালিকায় যাদের নাম উঠেনি

ফিফা বেস্টের সংক্ষিপ্ত তালিকায় যাদের নাম উঠেনি

খেলা

নভেম্বর ২৩, ২০২১ ৮:২৫ পূর্বাহ্ণ

লুইস সুয়ারেজ, পেদ্রি, জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা, রোমেলু লুকাকু, ব্রুনো ফার্নান্দেজ, রহিম স্টার্লিং; নামগুলো পড়লে আক্ষেপ জমা হতেই পারে। সদ্য ঘোষিত ফিফা বেস্টের সংক্ষিপ্ত তালিকায় নাম আসেনি এদের কারোরই।

সোমবার (২২ নভেম্বর) এ বছরের ফিফা বেস্টের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। ১১ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় নাম নেই সুয়ারেজ, দোন্নারুমা, পেদ্রিদের। সুয়ারেজ গত মৌসুমে লা লিগায় অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে সর্বোচ্চ গোল করেছিলেন, তার দলও হয়েছে লিগ চ্যাম্পিয়ন। এমন বিধ্বসী পারফরম্যান্সের পরও ফিফা বেস্টের তালিকায় নাম না দেখে আক্ষেপ করতেই পারেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার।

দোন্নারুমা তো এ বছর ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড়ই হয়েছেন। তারও নাম আসেনি ফিফা বেস্টের সংক্ষিপ্ত তালিকায়। পেদ্রি ছিলেন ইউরোর সবচেয়ে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়। বার্সেলোনা কিংবা স্পেন; পেদ্রি এ বছর কি করেননি মাঠের খেলায়?

পুরুষদের ক্যাটাগরিতে ১১ জনের তালিকায় নাম আছে লিওনেল মেসির। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও কিলিয়ান এমবাপ্পেরাও আছেন। বাকিরা হলেন- করিম বেনজেমা, কেভিন ডি ব্রুইন, এরলিং হল্যান্ড, জর্জিনহো, এনগোলো কান্তে, রবার্ট লেওয়ানডোস্কি, নেইমার জুনিয়র ও মোহামেদ সালাহ। এই পুরস্কারের বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে আগামী বছরের ১৭ জানুয়ারি। সে দিনই বিজয়ীর হাতে তুলে দেওয়া হবে পুরস্কার।

মেসি এ বছর জাতীয় দলের হয়ে জিতেছেন কোপা আমেরিকার ট্রফি। সে হিসেবে এবারের পুরস্কারের জন্য অগ্রগণ্য নাম হতে পারেন পিএসজির এই আর্জেন্টাইন জাদুকর। তবে এ ক্ষেত্রে হয়তো সবচেয়ে বেশি ফেবারিট চেলসির ইতালিয়ান মিডফিল্ডার জর্জিনহো। এ বছর চেলসির সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের পাশাপাশি তিনি জাতীয় দল ইতালির হয়ে জিতেছেন ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা।

সেরা গোলরক্ষকের তালিকায় নাম এসেছে লিভারপুলের ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকার, জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা, এদুয়ার্দ মেন্দি, ম্যানুয়েল নয়্যার ও ক্যাস্পার স্মাইকেলের। অবাক করা বিষয় হচ্ছে আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজের নাম না থাকা। এ বছরই আর্জেন্টিনাকে চির আরাধ্য ট্রফি কোপা আমেরিকা জেতাতে অসাধারণ নৈপুণ্য রেখেছেন তিনি। সে কারণেই হয়তো এমিলিয়ানোর বাদ পড়া নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। কেউ কেউ বলছেন মার্টিনেজের নামটি এই তালিকায় থাকলেও থাকতে পারতো। আবার কেউ বলছেন এমিলিয়ানোকে বাদ দিয়ে সঠিক পথেই হেটেছেন নীতি নির্ধারকেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *