ফরিদপুরে শীর্ষ সন্ত্রাসী সুমন মিয়ার উপর্যোপরী ছুরিকাঘাতে ও ছেড়ে দেননি পুলিশ সাব ইন্সপেক্টর মামুন

ফরিদপুরে শীর্ষ সন্ত্রাসী সুমন মিয়ার উপর্যোপরী ছুরিকাঘাতে ও ছেড়ে দেননি পুলিশ সাব ইন্সপেক্টর মামুন

দেশজুড়ে

আগস্ট ১০, ২০২২ ৬:৪৪ অপরাহ্ণ

এস এম হুমায়ুন কবির

গত বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুরে ফরিদপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (মধুখালী-বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গা সার্কেল) সুমন কর শীর্ষ খবর কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, আসামি সুমন মিয়ার নামে ফরিদপুরের নগরকান্দা থানার একটি হত্যা মামলা ও গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানায় অন্য একটি মামলায় ওয়ারেন্ট রয়েছে।

তিনি দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) রাত সাড়ে ৭টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পৌরসভার ওয়াবদার মোড় পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস এলাকায় এসআই মামুন ইসলাম তাকে ধরতে যান। এ সময় আসামি ও পুলিশের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়।

ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে আসামি নিজেকে ছাড়িয়ে নিতে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এতে পুলিশ কর্মকর্তা মামুন ইসলাম আহত হয়। এ সময় ধস্তাধস্তি হলে আসামিও আহত হয়। পরে খবর পেয়ে থানা থেকে আরও পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এসআই মামুন ইসলাম বলেন, যখন আসামিকে ধরতে গেছি তখন সে ছুরি দিয়ে আমাকে অনেকগুলো আঘাত করে। এসময় একটি আমার মুখে লাগে। এতে আমার মুখে কেটে যায়।

তিনি আরও বলেন, যখন তাকে ধরতে গেছি তখন আসামি আমার মুখ লক্ষ্য করে একাধিক কোপ দেয়। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে আমি এ ঘটনায় মামলা করবো।

ফরিদপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (মধুখালী-বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গা সার্কেল) সুমন কর শীর্ষ খবর কে বলেন, ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি সুমন মিয়াকে ধরতে গিয়ে ধস্তাধস্তির সময় আসামির ছুরির আঘাতে মামুন ইসলাম আহত হয়। একই সময় আসামিও আহত হয়েছে। তাদের দুজনকেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আসামি সুস্থ হলে আদালতে পাঠানো হবে।
উল্লেখ্য কক্সবাজারের রামু থানায় ইতোপূর্বে পুলিশের এই সাব ইন্সপেক্টর দায়িত্ব পালন কালীন সময়ে অকুতোভয় সৈনিক হিসাবে যথেষ্ট নাম রয়েছে। সে দুধর্ষ এবং ভয়ংকর অনেক সন্ত্রাসী কে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করেছেন যার কারণে কক্সবাজারের অপরাধীদের কাছে মূর্তমান আতঙ্কের নাম ছিল পুলিশ সাব ইন্সপেক্টর মামুন ইসলাম

Leave a Reply

Your email address will not be published.