পিএসজির হয়ে ‘বিশেষ কিছু’ অর্জন করতে চান মেসি

পিএসজির হয়ে ‘বিশেষ কিছু’ অর্জন করতে চান মেসি

খেলা স্লাইড

আগস্ট ১২, ২০২১ ১১:২২ পূর্বাহ্ণ

আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি বলেছেন, প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) হয়ে ‘বিশেষ কিছু’ গড়তে চান তিনি। গতকাল পিএসজির সঙ্গে দুই বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন মেসি। যেখানে চুক্তির মেয়াদ আরো এক বছর বাড়ানোর সুযোগ রাখা হয়েছে।

পিএসজিতে ৩০ নম্বর জার্সি পড়ে খেলবেন মেসি। বার্সার হয়ে পেশাদার ক্যারিয়ারের শুরুতে ওই জার্সি পড়েই খেলেছেন ছয় বারের ব্যালন ডি’অর এ খেতাব জয়ী।

মেসি বলেন,পিএসজিতে নতুন পর্ব শুরুর ব্যাপারে আমি দারুণভাবে রোমঞ্চিত হয়ে আছি। ফুটবল নিয়ে আমার যে উচ্চাকাঙ্খা রয়েছে তার সবকিছুই এই ক্লাবটির সঙ্গে মানানসই। আমি জানি এখানকার কোচিং স্টাফ ও স্কোয়াডটি কতটা মেধাবী।  ক্লাব ও সমর্থকদের জন্য বিশেষ কিছু এনে দেয়ার বিষয়ে আমি দৃঢ় প্রত্যয়ী। পার্ক ডি প্রিন্সেসে পা দেয়ার জন্য আমি এখন অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।

এর আগে মঙ্গলবার প্যারিসে আসার পর সেখানে মেসিকে পিএসজির সমর্থকরা উষ্ণ অর্ভথ্যনা জানান। গত সপ্তাহে বার্সেলোনা ছাড়ার ঘোষণার পর থেকেই অনুমেয় ছিল প্যারিসেই আসছেন মেসি।  আর তাই পিএসজির সমর্থকদের মধ্যে অন্য রকম এক অনুভূতি কাজ করছিল। বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকাকে দলে পেতে তাদের অপেক্ষা যেন আর শেষ হচ্ছিলোনা।

মঙ্গলবার দুপুরে প্যারিসের লে বোগেট বিমানবন্দরে মেসিকে বহনকারী বিমানটি অবতরনের পর থেকেই পুরো প্যারিস যেন উৎসবে মাতোয়ারা হয়ে ওঠে। বিমানবন্দরেই স্বপ্নের নায়ককে স্বাগত জানানোর জন্য হাজারো পিএসজি সমর্থক উপস্থিত ছিলেন। একইসঙ্গে ঘরের মাঠ পার্ক ডি প্রিন্সেসের বাইরেও সমর্থকরা জড়ো হতে থাকে।

বিমানবন্দরে প্যারিস লেখা টি-শার্ট পরিহিত মেসি এ সময় সমর্থকদের উদ্দেশ্যে হাত নেড়ে অভিবাদনের জবাব দেন।

এর আগে বার্সেলোনা এল পার্চ বিমানবন্দরে আসার পর মেসির বাবা ও একইসঙ্গে তার তার এজেন্ট হোর্হে জানিয়েছিলেন মেসি প্যারিসেই যাচ্ছেন।

কয়েকদিন আগেই বার্সেলোনায় ১৭ বছরের পেশাদার ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছিলেন মেসি। যেখানে দীর্ঘ ২১ বছর কাটিয়েছেন তিনি। যদিও গত কয়েকদিন ধরেই অনুমেয় ছিল বার্সেলোনা ছেড়ে মেসি পিএসজিতে যোগ দিতে যাচ্ছেন। বাকি ছিল শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণার।

ছয়বারের ব্যালন ডি’অর বিজয়ী মেসি পিএসজির ফরোয়ার্ড লাইনে নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপ্পের সঙ্গী হলেন। পুরো বিশ্ব এখন এই ট্রায়োর পারফরমেন্সের দিকে তাকিয়ে থাকবে। মেসিকে দলে নিয়ে পিএসজির মূল লক্ষ্যই থাকবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অধরা শিরোপাটি ঘরে তোলা।

ফরাসি সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, পিএসজির সঙ্গে মেসির চুক্তির মেয়াদ ২ বছরের। তবে এর সঙ্গে মেয়াদ ১ বছর বাড়িয়ে নেয়ার সুযোগ রাখা হচ্ছে। কাতারি মালিকানাধীন ক্লাবটিতে বছরে প্রায় ২৫ মিলিয়ন ইউরো বেতন পাবেন মেসি। অন্যান্য সুযোগ-সুবিধাসহ সবমিলিয়ে তার আয় হবে বছরে ৩৫ মিলিয়ন ইউরো।

এবারের গ্রীষ্মে পিএসজি এর মধ্যেই রিয়াল মাদ্রিদ থেকে অভিজ্ঞ স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস ও ইতালিয়ান গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি ডোনারুমাকে দলে ভিড়িয়েছে। এর আগে লিভারপুল থেকে ডাচ মিডফিল্ডার জর্জিনিও উইজনালডাকেও দলে নিয়েছিল। এছাড়া ইন্টার মিলান থেকে রাইট ব্যাক আচরাফ হাকিমিকে দলে নিয়েছে। গত সপ্তাহে লিগ ওয়ানের নতুন মৌসুমে পিএসজির প্রথম ম্যাচে হাকিমি গোলও করেছেন।

২০১৭ সালে বার্সেলোনা ছাড়ার আগে মেসির সঙ্গেই জুটি বেঁধে খেলেছিলেন ব্রাজিলীয় সুপার স্টার নেইমার। ফের প্রিয় বন্ধুকে পিএসজিতে সতীর্থ হিসেবে পাবার পর নেইমার টুইট করেছেন, ‘ব্যক টুগেদার’ অর্থাৎ ফের একত্রিত হলাম।

এতদিন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয় করতে না পারার কারণ হিসেবে পিএসজির কাতারি মালিক ৩৪ বছর বয়সি মেসির অনুপস্থিতিকেই চিহ্নিত করছিলেন। এরই ভিত্তিতে অনুমান নির্ভর হয়েই ভক্তরা মেসিকে পাবার আশায় বুক বাঁধেন। এখানেই শেষ নয়, রোববার রাত থেকেই বেশ কিছু পিএসজি সমর্থক লে বর্গেট বিমান বন্দরের সামনে ভীড় জমাতে শুরু করেছিলেন তাদের নতুন ‘গ্যালকটিকোকে’ স্বাগত জানানোর আশায়।

রোববার বার্সেলোনায় অশ্রুসিক্ত এক বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিয়ে নতুন কোন চুক্তির কথা অস্বীকার করেছিলেন মেসি। তবে পিএসজিতে যোগ দেয়ার সম্ভাবনার কথা জানান তিনি।

বাস্তবতা হচ্ছে ৩৪ বছর বয়সি এই আর্জেন্টাইন সুপার স্টারের জন্য বর্তমান পরিস্থিতিতে বার্ষিক বেতন হিসেবে ৩৫ মিলিয়ন ইউরো পরিশোধ করার ক্ষমতা কেবল পিএসজিরই রয়েছে। ম্যানচেস্টার সিটিও তাকে পেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বর্তমানে তারাও রনে ভঙ্গ দিলে মেসির একমাত্র গন্তব্য হিসেবে পিএসজি অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায়।

বার্সায় বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে মেসি বলেন, এখানে পৌঁছানোর প্রথম দিন থেকেই আমি বার্সেলোনার জন্য সামর্থ্যরে সবটুকু উজাড় করে দিয়েছি। ক্লাবটিকে বিদায় জানাতে হবে সেটি কখনো ভাবিনি। এবারো আমি ক্লাবটিকে বিদায় জানানোর উদ্দেশ্য নিয়ে আসিনি। এখনো এটিকে আমার কাছে অবাস্তব মনে হচ্ছে। এই ক্লাবটিকে আমি ভালবাসি।

মেসিকে ফুটবলের ইতিহাসে সবচেয়ে প্রতিভাধর খেলোয়াড় হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যিনি মাত্র ১৩ বছর বয়সে যোগ দেয়া বার্সেলেনায় ৩৫টি ট্রফি জয় করেছেন। এদের মধ্যে রয়েছে চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও ১০টি লিগ শিরোপা। ইাউরোপীয় শীর্ষ ৫টি লীগের মধ্য্যে সর্বাধিক ৬৭২টি গোলের নজীরও স্থাপন করেছেন মেসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.