নোয়াখালীতে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা আটক তিন জন

দেশজুড়ে

সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২ ২:১০ পূর্বাহ্ণ

রিপন মজুমদার (নোয়াখালী প্রতিনিধি) 

নোয়াখালী  পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড লক্ষ্মীনারায়ণপুর এলাকা থেকে তাসনিয়া হোসেন অদিতা (১৪) নামের অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
নিহতের দুই হাত ও গলা কাটা ছিলো। নিহতের মৃতদেহ অর্ধনগ্ন থাকায় পরিবারের দাবী তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে।
ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশ, গোয়েন্দা পুলিশ, সিআইডি ও পিবিআই সদস্যরা। ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন জনকে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে জাহান মঞ্জিলের একটি কক্ষ থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করেছেন পুলিশ। নিহত তাসনিয়া হোসেন অদিতা ওই এলাকার মৃত রিয়াজ হোসেন সরকারের মেয়ে। সে নোয়াখালী সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় মারা যান রিয়াজ হোসেন সরকার। জাহান মঞ্জিলের একটি কক্ষে দুই মেয়েকে নিয়ে থাকতেন রিয়াজের স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা। তিনি শহরের একটি বিদ্যালয়ে শিক্ষিকার চাকরি করেণ।

নিহতের মা রাজিয়া সুলতানা অভিযোগ করে বলেন, সকালে নিজ বাসা থেকে বের হয়ে বিদ্যালয়ে যান । দুপুর ১২টার দিকে প্রাইভেট শেষে বাসায় আসে অদিতা। এরপর থেকে বাসায় সে একাই ছিলো। সন্ধ্যায় বাড়িতে ফিরে এসে ঘরের মূল দরজায় তালা দেখতে পান তিনি। তালা খুলে ভিতরে প্রবেশ করে সামনের কক্ষের আলমেরিতে থাকা জিনিস-পত্র এলোমেলো অবস্থায় দেখতে পেলেও অদিতাকে দেখেননি। কিছুক্ষণ পর ঘরের ভিতরের একটি কক্ষ লাগানো দেখতে পেয়ে খুলে ভিতরে প্রবেশ করে বিচানার ওপর অর্ধনগ্ন, গলা ও দুই হাতের রগ কাটা অবস্থায় অদিতার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন তিনি।
তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন, এলাকার কিছু বখাটে দীর্ঘদিন ধরে অদিতাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতো। এবিষয়ে একাধিকবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানানো হয়। গত কয়েকদিন ধরে অদিতাকে ধর্ষণ করবে বলে বাড়ির সামনে এসে তাকে হুমকি দিতো কয়েকজন। তিনি ঘরে না থাকার সুবাদে কেউ ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে অদিতাকে ধর্ষণ করে গলা ও হাতের রগ কেটে হত্যা করে ঘরে লুটপাট করেছে।
জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আকরামুল হাসান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে অদিতাকে ধর্ষণের পর গলা ও হাতের রগ কেটে হত্যা করেছে। ঘটনাস্থল থেকে হত্যায় ব্যবহৃত একটি চোরা উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে ৩জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মূল্য হত্যাকারিদের চিহিৃত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.