চিতাবাঘের খোঁজে বসানো ক্যামেরা নিয়ে গেলো হনুমান!

চিতাবাঘের খোঁজে বসানো ক্যামেরা নিয়ে গেলো হনুমান!

মজার খবর স্পেশাল

সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২২ ৯:০৪ পূর্বাহ্ণ

কয়েকদিন থেকেই জঙ্গলে দেখা যাচ্ছে অচেনা কোনো জন্তুর পায়ের ছাপ। জঙ্গলের পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলো থেকে ছাগল-ভেড়া উধাও হয়ে যাচ্ছে। খুবলে খাওয়া ছাগলের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনাও ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ায়। এ অবস্থায় কংসাবতী দক্ষিণ বনবিভাগের বান্দোয়ান জঙ্গলের এই কাণ্ড চিতাবাঘ, নেকড়ে নাকি হায়েনা জাতীয় কোনো বন্যপ্রাণী করছে, তা নিশ্চিত হতে ট্র্যাপ ক্যামেরা লাগিয়েছিল কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু একটি হনুমান নাকি সেটি খুলে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে! বন অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, মাটি থেকে তিন ফুট উঁচুতে একটি জিওল গাছে বেল্ট দিয়ে বাঁধা ছিল ক্যামেরাটি। কেউ সেটি খুলে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে। গাছটিতে যে ধরনের আঁচড় দেখা গেছে, তা থেকে এটি হনুমানের কাণ্ড বলে মনে করছে বনবিভাগ।

অরণ্য ভবনের এক কর্মকর্তা বলেছেন, হনুমান বেশ চালাক প্রাণী। ক্যামেরাটি হয়তো তার কাছে অচেনা বস্তু মনে হয়েছে বা ওই ক্যামেরা থেকে আলোর ঝলকানি হওয়ায় সে এই কাজ করে থাকতে পারে।

চলতি বছর পুরুলিয়ার কোটশিলার সিমনি বিটের জাবর পাহাড়ের জঙ্গলে এক জোড়া চিতাবাঘের উপস্থিতি ধরা পড়েছে ট্র্যাপ ক্যামেরায়। এ কারণে বান্দোয়ানের জঙ্গলে ছাগল শিকারও চিতাবাঘের কাণ্ড হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিষয়টি নিয়ে ভেশ দুশ্চিন্তায় পড়েছে বন বিভাগ। কারণ উদলবনী জঙ্গলের কাছাকাছি জনবসতি রয়েছে এবং অনেকেই জীবিকা নির্বাহের জন্য বা গবাদি পশু চরানোর জন্য ওই জঙ্গলে যান। এ কারণে গ্রামবাসীদের সতর্ক করতে প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

সূত্র: আনন্দবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published.