গর্জনিয়ায় বনবিভাগের সুফল প্রকল্পের ১০ একর বাগান এসিডে ঝলসে দিল বনরাক্ষস জয়নাল

গর্জনিয়ায় বনবিভাগের সুফল প্রকল্পের ১০ একর বাগান এসিডে ঝলসে দিল বনরাক্ষস জয়নাল

দেশজুড়ে

জুলাই ১৬, ২০২২ ৫:৫৭ অপরাহ্ণ

এস এম হুমায়ুন কবির, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার

কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নে বনবিভাগের সুফল প্রকল্পের ১০ একর বাগান এসিডে ঝলসে দিয়েছে  বনরাক্ষস হেডম্যান জয়নাল। প্রায় ডজনখানেক বন মামলার আসামী, যার বিরুদ্ধে সরকারি বনের পাহাড় কর্তন, বনভুমি জবরদখল, সুফল প্রকল্পের ১০ একর বনায়ন এসিডে ঝলসে দিয়ে প্রায় ৫০ হাজার রোপিত বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা নষ্ট, কাঠ চুরি, উৎকোচের বিনিময়ে বনভুমি দখলবাজদের জবরদখলে সহায়তা সহ বিস্তর গূরুতর অভিযোগের শেষ নেই সেই আলোচিত বনরাক্ষস হেডম্যান জয়নাল আবেদিন এখনো কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বাঁকখালি বন রেঞ্জের আওতাধীন ঘিলাতলি বনবিটের সংরক্ষিত বনজ সম্পদ হরিলুট ও বনভুমি জবরদখল চলছে।

ঘিলাতলি বনবিটের বেলতলি বাজার টু ছাগলখাইয়া বিজিবি ক্যাম্প সড়কের মিনছমার ঝিরি উঠুনি থেকে নেমেই ১০/১২ একর ২০২০-২০২১ সালের সুফল প্রকল্পের বাগান এসিড ছিটিয়ে সম্পুর্ন ধ্বংস করেছে। সেই সুফল প্রকল্পের জায়গায় বনরাক্ষস খ্যাত হেডম্যান জয়নাল লেবু ,কমলা,কলার চারা রোপণ করছে।

গত বছর ও ভুমিদস্যু হেডম্যান খ্যাত জয়নাল আবেদিন এই স্পটের পার্শ্ববর্তী ছাগলখাইয়া বিজিবি সড়কের দক্ষিণ পাশে প্রায় ২০ একর বনভুমি জবরদখল করে মৎস্য প্রজেক্ট, চাষাবাদের জমি সহ ফলদ বনায়ন করেছে। ঘিলাতলি বনবিটের হেডম্যান হিসাবে জয়নাল নিজেকে জাহির করে চলতি বছরে ঘিলাতলি বনবিটের আওতাধীন এলাকায় কমপক্ষে ২ শতাধিক ঘরবাড়ি উঠানোর কাজে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জবরদখলকারীদের সহযোগিতা করেছে। বিনিময়ে কোটি বেশি অংকের উৎকোচ হাতিয়ে নিয়েছে বনরাক্ষস হেডম্যান জয়নাল আবেদিন।

সরকারি বনজ সম্পদ লুঠতরাজ, বনভুমি জবরদখল, পাহাড় কর্তন সহ জঘন্য সব ক্রাইমে জড়িত থাকার তথ্য-উপাত্ত নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয়, আঞ্চলিক ও স্হানীয় পত্রিকায় তথ্য বহুল প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে বনখেকো হেডম্যান জয়নালের বিরুদ্ধে। শত অপরাধের সামরাজ্য চালিয়ে বন রাক্ষস হেডম্যান জয়নাল স্বপদে এখনো বহাল তবিয়তে থাকায় এবং বন বিভাগের উর্দ্ধতন মহল নিরবতা পালন করায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরিবেশবাদী মহল।

অবশ্য উপপ্রধান বন সংরক্ষক ও সুফল প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সুবিন্দ রায় বিষয়টি সর্বোচ্চ গূরুত্ব সহকারে তদন্তে নেমেছেন বলে এ প্রতিবেদক কে জানিয়েছেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.