করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত আরও বাড়ল

করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত আরও বাড়ল

স্পেশাল স্বাস্থ্য

নভেম্বর ১৭, ২০২১ ৯:২৭ পূর্বাহ্ণ

স্বাস্থ্য ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনায় চলতি সপ্তাহের শুরু থেকে সংক্রমণ ও মৃত্যু ওঠানামা করছে। তবে পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তিদের সংখ্যা প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সংস্থাটির তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় বুধবার (১৭ নভেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছে আরও ৭ হাজার ১৬১ জন। অন্যদিকে শনাক্ত হয়েছে ৪ লাখ ৮৬ হাজার ৭৭৪ জন।

এর আগে মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গিয়েছিল ৪ হাজার ৯৫০ জন। অন্যদিকে শনাক্ত হয়েছিল ৪ লাখ ৩ হাজার ৮৮৮ জন।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২৫ কোটি ৫০ লাখ ৫৯ হাজার ৪৭৫ জন এবং মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫১ লাখ ২৯ হাজার ২৮০ জনে। আর সুস্থ হয়েছেন ২৩ কোটি ৫৭ লাখ ৫ হাজার ২৬১ জন।

ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে জানা গেছে করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছে ৪ কোটি ৮১ লাখ ৬১ হাজার ৩৭৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ৭ লাখ ৮৬ হাজার ২৬৮ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৩ কোটি ৪৪ লাখ ৫৬ হাজার ৪০১ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৬৩ হাজার ৮৫২ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় ও মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ১৯ লাখ ৬৫ হাজার ৬৮৪ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১১ হাজার ৫২৪ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৯৬ লাখ ৩৭ হাজার ১৯০ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৪৩ হাজার ১৫৯ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯১ লাখ ৪৫ হাজার ৯১২ জন। মারা গেছেন ২ লাখ ৫৭ হাজার ৮৩৭ জন।

আক্রান্তের তালিকায় তুরস্ক ষষ্ঠ, ফ্রান্স সপ্তম, ইরান অষ্টম, আর্জেন্টিনা নবম এবং স্পেন দশম অবস্থানে রয়েছে। এ তালিকায় বাংলাদেশে অবস্থান দাঁড়িয়েছে ৩০তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *