এবার একসঙ্গেই উয়েফার ৩ আসর

এবার একসঙ্গেই উয়েফার ৩ আসর

খেলা

মে ২৬, ২০২১ ১০:১১ পূর্বাহ্ণ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং ইউরোপা লিগের পর এবার ইউরোপা কনফারেন্স লিগ নামে আরো একটি টুর্নামেন্ট আয়োজনের ঘোষণা দিলো উয়েফা। আসছে জুলাইয়ে উয়েফার তৃতীয় স্তরের এ আসরটি মাঠে গড়াবে বলে জানিয়েছেন আলেক্সান্ডার সেফেরিন। মূলত উয়েফার নিচু র‌্যাংকিংয়ের দেশগুলো থেকেও যেন বিভিন্ন ক্লাব ইউরোপিয় টুর্নামেন্ট খেলার অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে, এ জন্যই এ টুর্নামেন্টের আবির্চাব বলে দাবি সেফেরিনের।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আর ইউরোপা লিগ, এখন পর্যন্ত এ দুটিই উয়েফার মূল আসর। উয়েফার র‌্যাংকিংয়ে ওপরের দিকে থাকা দেশগুলো থেকে ৮০টির মতো ক্লাব অংশ নিত এ আসর দুটিতে। টুর্নামেন্ট দুটির আকর্ষণ বাড়াতে নানা সময় নানা দিক থেকে প্রস্তাব আসলেও, কখনই মৌলিকত্ব নষ্ট করতে রাজি হয়নি আলেক্সান্ডার সেফেরিন গং।

এই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নিয়ে নানামুখী ষড়যন্ত্র হয়েছে গত কয়েকমাস ধরে। ইউরোপীয় এলিট ক্লাবগুলোর সুপার লিগ তত্ত্ব সামনে এসেও মুখ থুবড়ে পড়েছে সমর্থকদের দুয়ার মুখে। চোখ রাঙানি দিয়েছিলেন উয়েফার কর্তা ব্যক্তিরাও।

তবে, কিছুটা পরিবর্তন ছিল সময়ের দাবি, যেটা কিছুটা দেরিতে হলেও বুঝতে পেরেছেন উয়েফা এবং ইউরোপীয় ফুটবল প্রশাসকরা। তাই তো, এবার নতুন একটা টুর্নামেন্টের চিন্তা এসেছে তাদের মাথায়। তবে, সেটা বর্তমান কোনো আসরের বিকল্প নয় বরং একেবারে আনকোড়া নতুন একটা ফরম্যাট। যদিও, আলোচনা আছে, ইপিএল এবং বড় লিগের ক্লাবগুলোতে যারা টেবিলের শীর্ষজায়গাগুলো মিস করে গেছে, তাদেরকে নিরাপত্তা দিতেই এ টুর্নামেন্ট নিয়ে ভাবছে ইউরোপিয়ান কর্তারা।

টুর্নামেন্টটির পোশাকি নাম দেয়া হয়েছে, উয়েফা ইউরোপা কনফারেন্স লিগ। মূলত র‌্যাংকিংয়ে নিচের দিকে থাকা দেশগুলোর বিভিন্ন ক্লাব, যারা ইউসিএল এবং ইউরোপায় খেলার সুযোগ পায় না, তাদেরকে সুযোগ করে দিতেই এ ভাবনা মাথায় এসেছে উয়েফার। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এতোদিন ৩২ এবং ইউরোপা লিগে ৪৮টি ক্লাব খেললেও, এখন থেকে ২০২৪ পর্যন্ত তিনটি আসরেই ৩২টি করে ক্লাব খেলার সুযোগ পাবে এ আসরের ফলে।

তবে, এখন পর্যন্ত যে ফরম্যাট দেয়া হয়েছে, তার সবচেয়ে হাস্যকর দিক হচ্ছে আগামি মৌসুম থেকে কিছু ক্লাব উয়েফার এই তিনটি আসরেই খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারে। যেটা নিয়ে এখনও কোনো মন্তব্যই করেনি সেফেরিন বাহিনী।

উয়েফা প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার সেফেরিন বলেন, আমরা আমাদের টুর্নামেন্টগুলোতে আরও বেশি ক্লাবের অন্তর্ভুক্তি দেখতে চাই। আরও বেশি বেশি ক্লাবকে ইউরোপীয় আসর খেলার সুযোগ দিতে চাই। এতে করে দুনিয়ার বিভিন্ন কোণে ফুটবলের সমর্থক তৈরি হবে। আমাদের ৫৫ অ্যাসোসিয়েট মেম্বার আছে। তাদের সবাইকে আমরা ইউএসিল এবং ইউরোপায় জায়গা দিতে পারি না। কনফারেন্স লিগের মাধ্যমে তাদের সবাইকে এক জায়গায় আনার চেষ্টা করেছি। ফুটবল উন্নয়নের জন্য এটা খুব প্রয়োজন। যত বেশি ক্লাব ইউরোপিয়ান আসরে আসবে, তত বেশি নতুন মার্কেট সৃষ্টি হবে। ফুটবলাররা আর্থিকভাবে উপকৃত হবে। মাঠের খেলার সৌন্দর্য বাড়বে। এটা নিয়ে নেতিবাচক কথা না বলে, সবার উচিত আমাদের সহায়তা করা।

এই জুলাইয়েই মাঠে গড়াবে কনফারেন্স লিগের প্রথম আসর। ১৯৯৮/৯৯ মৌসুমের পর, এই প্রথম একসঙ্গে তিনটি আসর পরিচালনা করবে উয়েফা। তবে, এই মৌসুমে আসরটিতে কারা খেলবে এখনও তা চূড়ান্ত করতে পারেনি তারা।

আসছে সপ্তাহে সূচিসহ সমস্ত কিছু ঠিক করা হবে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে, ২০২২ এর মে মাসে আলবেনিয়াতে গড়াবে প্রথম কনফারেন্স লিগের ফাইনাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.