আফগানিস্তান অস্থিতিশীল করলে ফল ভালো হবে না

আফগানিস্তান অস্থিতিশীল করলে ফল ভালো হবে না

আন্তর্জাতিক স্লাইড

অক্টোবর ১১, ২০২১ ১:১৮ অপরাহ্ণ

যুক্তরাষ্ট্রকে আবারও হুঁশিয়ারি দিল তালেবান। বলেছে, আফগানিস্তানের নতুন ক্ষমতাসীন সরকারকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করবেন না।

এটা কারও জন্য ভালো হবে না। কাতারের দোহায় মার্কিন প্রতিনিধিদের সঙ্গে মুখোমুখি বৈঠকে এ হুঁশিয়ারি দেন তালেবান প্রতিনিধিরা।

শনিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন তালেবান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি। তিনি বলেন, বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

তালেবানের এ হুঁশিয়ারি বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের তরফে কোনো প্রতিক্রিয়ার কথা জানা যায়নি। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করেছে ইরান।

বলেছে, আফগানিস্তানে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসকে সংগঠিত ও পৃষ্ঠপোষকতা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

আফগানিস্তানের কুন্দুজ শহরের একটি মসজিদে শুক্রবার ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ৫৫ জন নিহত ও আরও শতাধিক মুসল্লি আহত হন।

জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস ওই হামলার দায় স্বীকার করে। এক বিবৃতিতে হামলায় হতাহতের জন্য গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়ে আফগানিস্তানের জনগণকে বার্তা পাঠিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি।

একে বোমা হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, একথা কারও অজানা নয় যে, মার্কিন সমর্থন ও পরিকল্পনায় সন্ত্রাসীগোষ্ঠী দায়েশ আফগানিস্তানে বেড়ে উঠেছে।

ইরানি প্রেসিডেন্ট বলেন, সম্প্রতি আমেরিকা আইএসকে আফগানিস্তানে তৎপরতা চালানোর সুযোগ করে দিয়েছে এবং তাদের মূল মূলোৎপাটনের ক্ষেত্রে বাধা দিয়েছে।

গত ১৫ আগস্ট পশ্চিমা-সমর্থিত আশরাফ গনি সরকারকে হটিয়ে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এরপর থেকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের স্বীকৃতি পাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তারা। তবে পশ্চিমা দেশগুলো বলেছে, আফগানিস্তানে নারী ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের ব্যাপারে তালেবানের দৃষ্টিভঙ্গি কী হয়, সেটির ওপরই নির্ভর করছে এই স্বীকৃতি। শনিবার কাতারের দোহায় তালেবান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দুই দিনের এক বৈঠক শুরু হয়।

আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের পর এটা উভয় পক্ষের মধ্যে প্রথম কোনো শীর্ষ সম্মেলন। এর আগে ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তালেবানের গোপন আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেই আলোচনায় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন আফগানবিষয়ক মার্কিন বিশেষ দূত জালমাই খালিজাদ।

এ বৈঠকে তালেবান প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে আছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুত্তাকি। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের আফগানবিষয়ক উপবিশেষ প্রতিনিধি টম উয়েস্ট এবং ইউএসএআইডির মানবিক সহায়তাবিষয়ক কর্মকর্তা সারাহ চার্লস।

প্রথমদিনের বৈঠক শেষে আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুত্তাকি আফগানিস্তানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বখতারকে বলেন, ‘আমরা তাদের পরিষ্কার করে বলে দিয়েছি, আফগান সরকারকে অস্থিতিশীল করার কোনো ধরনের চেষ্টা চালানো হলে তার ফল ভালো হবে না।’

মুত্তাকি আরও বলেন, ‘আফগানিস্তানের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখাটা সবার জন্যই ভালো হবে। আফগানিস্তানের বর্তমান সরকারকে দুর্বল করার কোনো চেষ্টা চালানো উচিত হবে না। এটি করা হলে তা জনগণের জন্য সমস্যা ডেকে আনতে পারে।’

নগদ অর্থের মাধ্যমে আফগানদের সহায়তার পরিকল্পনা : নগদ অর্থের মাধ্যমে আফগান নাগরিকদের সহায়তার পরিকল্পনা করছে পশ্চিমা দাতা দেশগুলো। তালেবানকে পাশ কাটিয়ে আফগানদের সহায়তা দেওয়ার পরিকল্পনা থেকেই এমন চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে রয়টার্স। গোপনীয় এই পরিকল্পনার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা বলছেন, হতাশ আফগানদের খাবার কেনার জন্য এমনকি তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিক্রি করে দিতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে তালেবান সরকারকে এড়িয়ে সাধারণ মানুষকে অর্থ সহায়তা দিতে ক্যাশ এয়ারলিফট একটি ভালো বিকল্প হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *